এক যে আছে ফোয়ারা (Jet d’Eau, Geneva, Switzerland)

জেনেভা শহরের উচ্চাকাঙ্ক্ষা, দর্প, ক্ষমতা, শক্তি, গতিময় জীবনী শক্তির প্রতীক লেক জেনভার এই আকাশচুম্বী ফোয়ারা – Jet d’Eau , মানে জলের ফোয়ারা। সারা বছরই আকাশ ছোঁয়ার নেশায় আকাশ পানে হাত বাড়ায়, পৃথিবীর অন্যতম উঁচু এই জল ফোয়ারা – শুধু শীতকালে যখন লেকের জল জমে যায়, কিংবা খুব জোরে হাওয়া চলে, সেই সময়ই ফোয়ারা বন্ধ থাকে। এই ফোয়ারা যেন জেনেভার এক তরল মনুমেন্ট।

একশো চল্লিশ মিটার উচ্চতার এই ফোয়ারা জেনেভার আকাশ রেখাকে নিয়ন্ত্রণ করে, এমনকি, এরোপ্লেনে জেনেভার উপর দিয়ে যাওয়া কিংবা জেনেভা এয়ারপোর্টে নামার সময়ও, এই উঁচু ফোয়ারার অহংকার দেখা যায়। আবার উজ্জ্বল দিনে লেক জেনেভার পাশে হেঁটে যেতে যেতে দেখা যায়, সূর্য রশ্মির সঙ্গে ফোয়ারার জলকণারা মিশে ফোয়ারার গায়ে কেমন অপূর্ব সুন্দর রামধনু রং তৈরি করেছে। উজ্জ্বল নীল লেকের জলে এই ফোয়ারা ও রামধনু মিলেমিশে এক অপূর্ব ছবি ফুটিয়ে তোলে। বোট ক্রুজ যখন ফোয়ারাটির একদম পাশ দিয়ে নিয়ে যায় – গায়ে এসে লাগে ফোয়ারার জলকণা, ভিজিয়ে দিয়ে যায় ভেজা বাতাস। হাওয়ার দিক বদলের সঙ্গে সঙ্গে ফোয়ারার পাশের সেই ভেজা বাতাসেরও দিক বদলায়। গরমের দিনে জেনেভার এক অন্যতম আনন্দ এই ফোয়ারা।

পৃথিবীর অন্যান্য অনেক আবিষ্কারের মতো এই ফোয়ারাও জন্মেছিল আকস্মিক ভাবে, ১৮৮৬ তে শুরু হয়েছিল la  Coulouvrenière হাইড্রোলিক পাওয়ার প্ল্যান্টের প্রেশার নিয়ন্ত্রণের জন্যে, এবং কিছুদিনের মধ্যেই এই ফোয়ারা জেনেভার প্রতীক হয়ে দাঁড়ায়। পরে আন্তর্জাতিক স্তরে এই ফোয়ারার আরও আকর্ষণ বাড়িয়ে তোলার জন্যে ফোয়ারাটির আকাশের দিকে জল ছুঁড়ে দেওয়ার ক্ষমতা ও উচ্চতা আরও বাড়ানো হয়, ও লেক জেনেভার কেন্দ্রে স্থাপন করা হয়। বিশেষ পদ্ধতিতে ফোয়ারার জলের রংকে করা হয়েছে আরও সাদা – ফোয়ারার জল আকাশে ছুঁড়ে দেওয়ার আগে মোটা জলের পাইপের ভেতরে যান্ত্রিক উপায়ে জলের সঙ্গে মিশ্রিত করা হয় প্রচুর পরিমানের বায়ু। শক্তিশালী পাম্প সেই জল ও বায়ুর মিশ্রণকে দু’শো কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা বেগে ছুঁড়ে দিচ্ছে আকাশের দিকে। সেজন্যেই লেক জেনেভার ফোয়ারার রংটি খুবই সাদা।

জেনেভার ট্যুরিজমের ওয়েব সাইটে প্রকাশিত হয়েছে বিখ্যাত এই ফোয়ারা। আবার জেনেভা যখন ২০০৮ এ Union of European Football Associations  এর চ্যম্পিয়নশিপ আয়োজন করেছিল, লেক জেনেভার এই ফোয়ারাই ছিল অফিসিয়াল লোগো।

আজ পৃথিবীর মানুষ এই ফোয়ারাকে দেখে জেনেভার শক্তি, ক্ষমতা, অহংকারের আঁচ পায়। যারাই জেনেভা দেখতে আসে এই ফোয়ারা তাঁদের যেন মনে করিয়ে দিতে চায় – এক শক্তিশালী ও সুসংগঠিত দেশের কথা। মনে করিয়ে দিতে চায় যে এই দেশে লেকের সাধারণ জলও আকাশ ছুঁয়ে দেওয়ার স্পর্ধা করে, স্বপ্ন দেখে।

Posted in Europe, Switzerland, Travel, Western-Europe | Tagged , , , , , , | Leave a comment